একটা শিশু পৃথিবীতে আসে খালি হাতে। তার হাতে সম্পর্কর বাঁধন ধরায়,মা- বাবা, তারপরে পরিবার এবং সমাজ।মা যদি তার সন্তানের আশ্রয় না হয়ে সারাক্ষন শুধু আপোষ করতে, নীচু হতে, অন্যায় কে মেনে নিতে শেখায় তখন? সে যদি কন্যা সন্তান হয় তবে জীবন্মৃত হয়েই থাকতে হয়।

শিশুটি যদি প্রশ্ন করে, ‘কেন, শুধু আমি ই কেন অকারনে নিচু হব?’

তোমাদের দেওয়া সম্পর্কের দায় কেন আমি একা বইবো? বারবার কেন মা তুমি আমায় বলো,’তুই একটু ছোটো হয়ে থাক?’ কেন মা? আমিতো আমার সন্তান কে শেখাইনি নিচু হতে, মানিয়ে নিতে, মেনে নিতে।সব অন্যায়, অন্যের করা অপমান শুধু মুখ বন্ধ করে সহ্য করেছি, এখন ও তুমি বলো, ‘তুই না হয় আরেকবার নিচু হলি’ এটা তোমার ও লজ্জা মা! আমি আর বাধ্য থাকতে পারছিনা।এতো অন্যায় সহ্য করলে এবার বোধ হয় ধরনী ও দ্বিধা হবে।আমি অবাধ্য, অসভ্য, মুখরা, অসতী, হয়ে দেখি একবারদূরবীন না হয় উল্টোই থাক।জে সম্পর্কে সম্মান নেই তা যত কাছের ই হোক আমি আর সিন্ধাবাদের বোঝা বইবো না।আমি পর হয়ে যাবো সবার এবং প্রোয়োজনে তোমারো।তবু এবার আমি নিজের ইচ্ছেয়, নিজের শর্তে বাঁচবো।

4

Advertisements