মনে করো আমি নেই। মানে জন্ম হয়নি আমার বা জন্মমাত্রই মারা গেছি। ভাবো আমি ছিলাম না কোনদিন, তোমাদের সাথে কাটাইনি সময়; আরে ভাবতে ক্ষতি কি পুড়িয়ে ফেলেছো আমায় মৃত মনে করে। হতেও তো পারে বহু দিন আগে আমি তারা হয়ে গেছি। ভাবো না ভাবো।

m.jpg


আমি ভুলে গেছিলাম মেয়ে হয়ে জন্মিয়েছি, যে কেউ, যখন খুশি আমায় অপমান করতে পারে। আমি মেয়ে তাই মগজ নয় দরকার কিছু মাংস ওই যেমন টা হলে কিছু পুরুষের পুরুষাঙ্গ দৃঢ় হয়। মেয়ে তোমার সাহস তো মন্দ না, কিছু পুরুষ তোমায় একান্তে চেয়েছে আর তাকে তুমি খোলা,বাজারে টেনেছো। তুমি জাননা অন্য পুরুষেরা এর বদলা নেবে। কেন জানোনা পৃথিবীর যে কোন নারীকেই বেশ্যা বলার অধিকার আছে কিছু পুরুষের? তুমি অন্যায় সহ্য করো, তুমি একা কাঁদো কিন্তু প্রতিবাদ? না ভুলেও না। চুপ! পুরুষ তার দাঁতে এবং নখে শান দিচ্ছে, তোমায় ভরা সভায় দ্রৌপদীর মত কাপড় খোলার জন্য, কৃষ্ণ আর জন্মায় কোথায়!

n.jpg


মেয়েদের ছবিতে বা এমনিতেও “sexy” বলে অনেকেই কম্পলিমেন্ট(??!) দেন। কথা হল এই বিশেষন ছেলেদের দেওয়া যায়না। ওনাদের মাচো, হ্যান্ডসম বলার চল। তা আমরা মহিলারা খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছাড়া বলিও না।সেক্সির সমার্থক শব্দ দেখছিলাম, অবাক হলাম লাস্ট ফুল দেখে। লালসাপুরণ!? আমার প্রোফাইল এ যে ছবিটা আছে, ওটা আমার ছেলে তুলেছে, ছেলের চোখে খুব সুন্দর। নইলে অত ভালো ছবি হতনা। কিন্তু এইখানেও সেই ইনবক্স এ sexy শুনতে হচ্ছে। যৌ ন আবেদন তাদের দেখার চোখে কারন আমার চরিত্র আমার চেয়ে ভালো আর কে জানবে। আমি ঠান্ডা, খুব ঠান্ডা। তাই যাদের মনে হচ্ছে আমি সেক্সি তারা চোখের ডাক্তার বা মনের ডাক্তার দেখাক।আমাকে সুশ্রি, বিশ্রী যা খুশি বলো কিন্তু সেক্সি বলবে না। খুব বিরক্তি লাগে। ঠিক আছে?

Bou for upload.JPG


ওদের সাথে রোজ ই দ্যাখা হয় আমার।ছেঁড়া, ময়লা হাফপ্যান্ট, ছেড়া জামা, বছর ভর নাকে সর্দি, না খেতে পাওয়া ব্রাত্য শিশুর দল। হাত পাতে, টাকা না দিয়ে কোন দোকানে নইয়ে খাইয়ে দেই। দোকানদার আড়ে দেখে আমায়,মুখে কিছু বললেই আমার যুক্তি তে হারে। যে সব খাবারের দোকান আমার মুখ মনে রেখেছে তারা এখন আর ঘাঁটায় না। আজকের হিন্দুস্তান টাইমসের ফ্রন্ট পেজ নিউজ ভারতে 67 million টন খাবার প্রতিবছর নষ্ট হয়। আজব দেশ ইয়ার! কত মানুষ স্বাধীনতার 70 বছর পরেও খালি পেটে রাতে ফুট পাথে শুয়ে থাকে, সে দেশে এতো খাবারের অপচয়? আসলে যার প্রয়োজনের বেশি আছে সেই নষ্ট করে বোঝেনা এই অসাম্যের সমাজ ব্যাবস্থায় তার বেশি থাকাটাই অন্যের প্রয়োজন না মেটার কারনেই। একটু না হয় অন্যের কথা ভেবে খাবার নষ্ট বন্ধ করি? পশ্চিমের বেশ কিছু স্বেচ্ছা সেবী সংগঠন লেফট ওভার খাবার সংগ্রহ করে।একটু সহানুভূতি অনেকের খুশির কারন হতে পারে। বন্ধুরা একটু ভাবুন। আর পুরোটা না পড়ে দয়া করে কমেন্ট করবেন না কেউ।

111.jpg


 

 

Advertisements