আজ সকাল থেকে সোশ্যাল মিডিয়া, খবরের কাগজ এবং টিভি তে উপছে পরছে মাতৃবন্দনা। মাদার্স ডে তো অন্যদিনের থেকে বেশী সংবেদনশীল। সারাবছর কিছু মানুষ মা, দেশ নিয়ে খুব স্পর্শকাতর; তাদের ঘরে যাইনি তাই বলতেও পারবো না তাদের মায়েরা কত সুখে, শান্তিতে আছে।আজ আমি এক মা হিসেবে যখন নিজের মা , নিজেকে এবং অন্যদের দেখছি তখন বারে বারে মনে হচ্ছে বড্ড বাড়াবাড়ি হচ্ছে।

আমার মা, মানুষ হিসেবে চিরকাল পুরুষতন্ত্রের ধারক; তাই আমার জন্য সব কিছুই কঠিন নিয়মে বাধা ছিল। সাইকেল চালালে মেয়েদের সতীচ্ছদ ছিঁড়ে জেতে পারে এই ভুল ধারনা থেকে উনি আমার হাত থেকে সাইকেল কেড়ে নিয়েছিলেন সেই বয়সে যখন সতীচ্ছদ ব্যাপারটাই জানতাম না। মা, সতীত্বে বিশ্বাস করতেন আজ ও করেন। বিয়ের আগে এবং পরে উনি সব সময় চেয়েছেন এই প্রমান করতে যে আমি ওনার কথায় উঠি বসি।এক্সময় আমি দেখলাম আমার জন্য অনেক কর্তব্য আছে কিন্তু অধিকার নেই।আমার মা সহজেই আমাকে হিংসুটে, বাজে বলে গালি দিয়ে পরে অস্বীকার করে কই? মানে ওনার স্মৃতি ওনার কথায় থাকে এবং নাশ হয়।

আমার শাশুড়ি, কিন্তু ওনার মেয়েদের জন্য ঠিক মা। কেউ ও নার সামনে ওনার কোন মেয়েকে অপমান বা অপবাদ দিলে উনি মেয়েদের হয়েই লড়াই করেন। সে ওনার মেয়েরা যতই ভুল হোক। আর আমার মায়ের সামনে আমার শাশুড়ি আমার নামে হাজার মিথ্যা অপবাদ দিলেও আমার মা চুপ থাকেন।সোজা হিসেব আমার শাশুড়ি মেয়ের মা হওয়ার যোগ্য আমার মায়ের সেই যোগ্যতা নেই। উনি ছেলের মা হিসেবেই ঠিক।

কত মা আছে মেয়ের পড়া বন্ধ করে ছেলের মেধা না থাকলেও তাকে পড়ান। শিশু কন্য হত্যা, ভ্রুণ হত্যা, নাবালিকা কন্য বিবাহ মায়েরাই দেন। মেয়ে মানে যে ভাবে হোক বিয়ে দিয়ে হাত ধুয়ে নেওয়া।

পনের জন্য যে মেয়েরা শ্বশুড় বাড়িতে খুন হয় তার নব্বই শতাংশ আটকানো যেতে পারে বা পাওয়া যেত যদি বিয়ের পরে মেয়ের জন্য একটু সহানুভূতি থাকতো মায়ের। বিয়ের পরে যদি মেয়ে বলে শ্বশুর বাড়িতে অপমানিত বা অত্যাচারিত হচ্ছে মা, ঝাঁপিয়ে পরে এটা বোঝাতে যে এমন টা হয় কিন্তু মানিয়ে নিতে হয়।মানিয়ে নিতে নিতে মেয়ের মৃত্যু সংবাদ আসে তখন চলে কেস। পনের বলি মেয়েদের মা ততটাই দোষী যতটা শ্বশুর বাড়ির লোকেরা।

আমরা ভাবি আমরা আমাদের ছেলে মেয়ের হাজার ভুল মাফ করি। আসলে উল্টোটা আমাদের সন্তান আমাদের লক্ষ ভুল মাফ করে।আমার উচ্চাশা, আমার মধ্যবিত্ত মানসীকতার জন্য আমি আমার সন্তানের জীবন নষ্ট করি। হয় সে টাকা বানানোর মেশিন হয় নইলে আত্মঘাতী। আমি মা যদি অতি ভাল তাহলে বৃদ্ধাশ্রমে এতো ভীড় কেন?

Advertisements